TOP সোশ্যাল

নাচতে নাচতেই ট্রাফিক সিগন্যালে নির্দেশ দেন ইনি, দেখে নিন ভিডিওতে

Loading...

তিনি কোনও সেলিব্রিটি নন। পেশায় তিনি একজন ট্রাফিক পুলিশ। তবু তাঁর ফেসবুক ফলোয়ারের সংখ্যা ৫০ হাজারেরও বেশি! বলিউডের অনেক তারকাই তাঁর সঙ্গে দেখা করে যান। কেন জানেন? তাঁর নাচের জন্য।

অবাক হচ্ছেন! ইনদওরের বছর আটত্রিশের ট্রাফিক পুলিশকর্মী রঞ্জিত সিংহ বিখ্যাত তাঁর নাচের জন্যই। তবে কাজে ফাঁকি দিয়ে নয়, নাচতে নাচতেই ট্রাফিক সিগন্যালে নির্দেশ দিতে দেখা যায় তাঁকে। মাইকেল জ্যাকসনের কায়দায় রীতিমতো ‘মুনওয়াক’ করতে করতে রাস্তার এক প্রান্ত থেকে আর এক প্রান্তে পৌঁছে যান তিনি।

আসলে মাইকেল জ্যাকসনের বিরাট বড় ভক্ত রঞ্জিত। জ্যাকসনের পারফরম্যান্সের প্রায় সবকটি ভিডিও তিনি বহুবার দেখেছেন। নাচের প্রায় প্রতিটি স্টেপ তাঁর মুখস্ত।

দেখুন ভিডিও:

সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে রঞ্জিত বলেন, “১২ বছর আগে প্রথম যখন এ ভাবে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করি, সে দিন সকলে অবাক হয়ে দেখছিল আমাকে। তার পর ধীরে ধীরে মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠি।”

কিন্তু কেন এই অদ্ভুত ভঙ্গিতে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন রঞ্জিত সিংহ?

রঞ্জিত বলেন, “ট্রাফিক আইন ভাঙে অনেকেই দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। আমার কর্মজীবনে এ পর্যন্ত অন্তত ৪০ জন তরুণের দেহ তুলেছি আমি। সিগনালে দাঁড়িয়ে থাকতে কারওরই ভাল লাগে না। আমার মনে হয়, আমাকে এ ভাবে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করতে দেখে অনেকেই অবাক হন, মজা পান আর সিগনালে দাঁড়িয়ে থাকার বিরক্তি এবং ক্লান্তি কেটে যায় তাঁদের।”

রোদ, ঝড়, বৃষ্টি সামলে, গাড়ির ধোঁয়া হজম করে ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তার মাঝে দাঁড়িয়ে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব সামলানো কতটা কষ্টকর তা হয়তো আমরা আন্দাজ করতে পারি। কিন্তু এই কষ্টসাধ্য কাজও গত ১২ বছর ধরে খেলার ছলে, নাচের তালে তালে সামলাচ্ছেন রঞ্জিত সিংহ। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর নাচের ভিডিও দেখেন হাজার হাজার মানুষ।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

আরও পড়ুন

সঙ্গীর কোন ভুল ক্ষমা করবেন আর কোনটি মেনে নেবেন, জানাচ্ছেন মনোবিদরা

ডিসকাউন্টের নামে দেদার লোক ঠকাচ্ছে, ই-কমার্স সাইটগুলির সব রহস্য ফাঁস

প্যানভেলের ফার্মহাউসে ক্যাটরিনার সঙ্গেই জন্মদিন সেলিব্রেট দাবাং খানের

কলকাতা-দিল্লি-বেঙ্গালুরু, শহরগুলিতে হামলার ‘নিদান’ দিল “আল কায়দা”

Loading...

Comments

comments