TOP লাইফস্টাইল

আপনি কি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাডিকটেড? জেনে নিন কিভাবে কাটাবেন এই অ্যাডিকশন

Loading...

আমরা যতই ব্যস্ত থাকিনা কেন, আমাদের চোখ বার বারই স্মার্টফোনের স্ক্রিনে চলে যায়। আপনি কি ভেবে দেখেছেন কখনো ডিজিটাল জগতে সবসময় ‘অন ‘ থাকার জন্য সোশ্যাল লাইফের কি ভয়ানক দশা হচ্ছে আপনার? আপনি কি বেরিয়ে আসতে চান চান এর থেকে তাহলে বদলে ফেলুন কিছু অভ্যাস।

  • বন্ধ রাখুন আপনার ফোনের পুশ নোটিফিকেশনস। আপনার ফোনে কিছু সময় পর পরই আসতে থাকে অনেক অপ্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন। আর সেইসব খেয়াল রাখতে বার বারই আপনাকে চোখ বুলাতে হয় আপনার ফোনের স্ক্রিনে। অহেতুক সময়ের অপচয় হতে এতে।
  • আমাদের স্মার্টফোনে অনেক অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস থাকে। সেগুলিকে ডিলিট করে দিন আপনার স্মার্টফোন থেকে। এতে সময় বাঁচানোর সাথে সাথে ফোনের মেমরিও খালি হবে অনেকটাই।

image-2-300x235 আপনি কি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাডিকটেড? জেনে নিন কিভাবে কাটাবেন এই অ্যাডিকশন

  • ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডে সময় না কাটিয়ে বরং ব্যস্ত রুটিনের ফাঁকে সময় পেলে বাস্তবে বন্ধুবান্ধবদের সাথে দেখা করুন কথাবার্তা বলুন। বাবা-মাকে নিয়ে ছুটি কাটাতে যান।

image-3-300x235 আপনি কি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাডিকটেড? জেনে নিন কিভাবে কাটাবেন এই অ্যাডিকশন

  • আপনি কি একটা দিনও স্মার্টফোন, ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক ছাড়া থাকার কথা ভাবতে পারেন না? তাহলে আপনার জন্য এই টিপসটা। তাহলে এখনই স্মার্টফোনের ডিসপ্লের রং বদলে ফেলে ধূসর করে নিন। বিশেষজ্ঞদের দাবি, স্মার্টফোনের কালারফুল ডিসপ্লে হচ্ছে একটি বিশেষ কারণ স্ক্রিন অ্যাডিকশনের।

image-1-300x235 আপনি কি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাডিকটেড? জেনে নিন কিভাবে কাটাবেন এই অ্যাডিকশন

  • এবার থেকে মোবাইলে অ্যালার্ম সেট না করে ঘড়িতে অ্যালার্ম দিয়ে রাখুন। কারণ আপনি ফোনে অ্যালার্ম দিয়ে সেটি বালিশের নিচে কিংবা বেডসাইড টেবিলে রেখে ঘুমোতে যান। তাতে স্মার্টফোনে নোটিফিকেশন আসলে সহজেই আপনি হাত বাড়িয়ে দেখে নেন ফলে দফারফা হয় ঘুমের। তাই ঘড়িতে অ্যালার্ম দিন এতে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটবেনা।

সূত্র: আনন্দবাজার

Loading...

Comments

comments