TOP আন্তর্জাতিক

নামমাত্র দামে নিলাম হল জার্মানির এই গ্রাম! কেন জানেন

Loading...

মাত্র ১ লক্ষ ৪০ হাজার ইউরো! এই সামান্য অর্থেই জার্মানির আস্ত একটি গ্রাম কিনে নিলেন এক ব্যক্তি! গ্রামটিকে পাণ্ডবর্জিতই বলা চলে। গ্রামের বাসিন্দা মাত্র ২০ জন। বে্শিরভাগই অবসরপ্রাপ্ত। বয়সের ভারে আর কাজকর্ম করারও ক্ষমতা নেই।

রাজধানী বার্লিন থেকে প্রায় ১২০ কিমি দূরে অবস্থিত ছোট্ট একটি গ্রাম আলউইন। জীবিকার সন্ধানে বেশিরভাগ বাসিন্দাই গ্রাম ছেড়ে চলে গিয়েছেন। বাপ-ঠার্কুদার ভিটের মায়া কাটাতে পারেননি প্রবীণ বাসিন্দারা। তবে সেই সংখ্যাটা নগণ্য। সংবাদসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, আলইউন গ্রামে এখন থাকেন মাত্র ২০ জন। তাঁদের রোজগার বলতে কিছুই নেই। চরম দারিদ্র্য আর অবহেলায় দিন কাটে তাঁদের। সম্প্রতি আলউইন গ্রামটিকে নিলামে তোলা হয়। নিলামের শুরুতে দাম উঠেছিল ১ লক্ষ ২৫ হাজার ইউরো। তবে তার থেকে সামান্য বেশি দামে মালিকানা বদলে গেল আলউইনের। ১ লক্ষ ৪০ হাজার ইউরো দিয়ে গ্রামটি কিনে নিলেন অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি। ইউরোচালু হওয়ার আগে জার্মানির মুদ্রা ছিল ডয়েসমার্ক। ২০০০ সালে প্রতীকি এক ডয়েসমার্কের মূল্যে এক ব্যক্তির কাছে আলউইন গ্রামটি বিক্রি করে দেওয়া হয়েছিল।

জানা গিয়েছে, নয়ের দশকের গোড়া পর্যন্ত কমিউনিস্ট শাসিত সাবেক পূর্ব জামানির অন্তর্ভুক্ত ছিল আলউইন গ্রাম। তখন গ্রামের আর্থিক সমৃদ্ধি ছিল যথেষ্টই। আলউইন গ্রামের কাছেই ছিল একটি ইটভাটা। ইটভাটায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন গ্রামের বাসিন্দারা। প্রত্যেক পরিবারের আর্থিক স্বচ্ছলতা ছিল। কিন্তু, ১৯৯০ সালে দুই জার্মানি এক হয়ে যাওয়ার পরই, ধীরে ধীরে বিস্মৃতির অতলে হারিয়ে যেতে থাকে আলউইন। ইটভাটাটি বন্ধ হয়ে যাওয়া, গ্রামবাসীদের রুটি-রুজিতে টান পড়ে। জীবিকা সন্ধানে গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র পাড়ি দিতে শুরু করেন বাসিন্দারা। এভাবে একসময়ে কার্যত জনহীন হয়ে পড়ে একদা সমৃদ্ধশালী গ্রামটি। এখন সাকুল্যে ২০ জন বাসিন্দা নিয়ে কোনওমতে নিজের অস্বিত্ব টিকিয়ে রেখেছে আলউইন। জার্মানি সরকারও গ্রামের উন্নয়নে সেভাবে কোনও উদ্যোগ নেয়নি বলে অভিযোগ।

সূত্র ঃ সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন

বিরাটের আগে নাকি এক বলিউডি নায়কের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল অনুষ্কার?

আবহাওয়াকেও নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন কিম, নয়া দাবি করল উত্তর কোরিয়া

পুরুলিয়ার হুচুকপাড়ার গণ্ডি ছাড়িয়ে এই মেয়েই এখন ‘মিসেস এশিয়া’-র মুকুটধারী

‘লগান’-এই বিখ্যাত অভিনেত্রীতে মনে আছে! দেখুন তার এখনকার ছবি

 

Loading...

Comments

comments