TOP বিনোদন

প্যানভেলের ফার্মহাউসে ক্যাটরিনার সঙ্গেই জন্মদিন সেলিব্রেট দাবাং খানের

Loading...

চারদিনেই বক্স অফিসে দেড়শো কোটিরও বেশি ব্যবসা করেছে তাঁর ছবি ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’। ‘টিউবলাইট’-এর গ্লানি দূর করে স্বমহিমায় ফিরেছেন টাইগার। বছর শেষে এমন ধামাকার পর জন্মদিনে একটা জমকালো অনুষ্ঠান হবে বলেই আশা করেছিলেন সলমন ভক্তরা। কিন্তু না, ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের নিয়েই জন্মদিনটা শুরু করলেন দাবাং খান।

ফের কি তাঁরা কাছাকাছি আসছেন? বিচ্ছেদের পর কি আবার সম্পর্ক জোড়া লাগছে? এসব প্রশ্নের উত্তর না মিললেও সলমন-ক্যাটরিনার ঘনিষ্ঠতা কিন্তু নীরবে অনেক কথাই বলছে। পাঁচ বছর পর একসঙ্গে যেমন রিল লাইফ কাঁপাচ্ছেন, তেমনই ছবির প্রচারে হাতে হাত ধরে ঘুরতে দেখা যাচ্ছে তাঁদের। সলমনের বর্তমান গার্লফ্রেন্ড হিসেবে পরিচিত লুলিয়া ভান্টুর নয়, ৫২ তম জন্মদিনের শুরুর মুহূর্তটা ক্যাটরিনার সঙ্গেই কাটালেন বলিউড সুপারস্টার। মঙ্গলবার গভীর রাতে প্যানভেলের ফার্মহাউসে ক্যাটরিনার পাশাপাশি হাজির ছিলেন টাইগার খানের পরিবারের সদস্যরাও। ছিলেন সংগীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়াও।

গোটা দিনটা কীভাবে সেলিব্রেট করবেন তা অবশ্য এখনও ফাঁস করেননি সল্লু মিঞা। তবে মধ্যরাত থেকেই নেটদুনিয়ায় শুভেচ্ছার বন্যা বইছে। অনুরাগী থেকে বলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও তাঁকে জন্মদিনে শুভকামনা জানাচ্ছেন। বাদ যাননি শাহরুখও। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়, মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, সলমনের জন্মদিনে তাঁকে কীভাবে শুভেচ্ছা জানাতে চান কিং খান? উত্তরে কোনও কথা না বলে বন্ধু সলমনের জন্য ‘তুম জিও হাজারো সাল’ গানই গাইলেন বলিউড বাদশা।

সলমনের এই বিশেষ দিনেই বরং তাঁদের ফ্যানদের জন্য রইল এমন কিছু তথ্য, যা হয়তো তাঁদের কাছে অজানা।

salman-story-size-650_010215042137 প্যানভেলের ফার্মহাউসে ক্যাটরিনার সঙ্গেই জন্মদিন সেলিব্রেট দাবাং খানের

২০১৫ সালে কারজাটের হাতলুনি গ্রামকে নতুন বছরে দারুণ সারপ্রাইজ দিয়েছিলেন সলমন। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’-এর গোটা দল নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন সেই গ্রামে। সেখানকার প্রতিটি বাড়ি রং করেছিলেন নিজে হাতে।

অনেকেই হয়তো জানেন না, সলমনের সাবানের প্রতি অদ্ভুত এক আকর্ষণ রয়েছে। তাঁর স্নানঘর সাজানো একগুচ্ছ সাবান দিয়ে। আর সাবানের ক্ষেত্রে কোনও কেমিক্যাল নয়, ভেষজ ও আয়ুর্বেদিক উপাদান দিয়ে তৈরি সাবানই তাঁর প্রিয়।

নায়ক হিসেবে ‘ম্যায়নে পিয়ার কিয়া’-ই সলমনের প্রথম ছবি বলে জানেন সকলে। কিন্তু তার আগে ১৯৮৮-তে ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’ ছবিতে প্রথম ছবির জগতে পা রেখেছিলেন সল্লু ভাই।

৫২ বছর বয়সেও দারুণ ফিট সলমন। এখনও প্রতিটি ছবিতে কখন তাঁর সিক্স প্যাক অ্যাব দেখা যাবে, সেই অপেক্ষায় থাকেন অনুগামীরা। কিন্তু শুধুই কি জিম করে ফিট থাকেন তিনি? না, তাঁর এমন ফিট চেহারার আরও একটি রহস্য আছে। সলমন একজন চ্যাম্পিয়ন সাঁতারু। সাঁতারের অনেক আন্তর্জাতিক ইভেন্টেও অংশ নিয়েছেন তিনি।

সলমনের নিজের নামে কোনও ইমেল আইডি নেই। কিন্তু কেন? অভিনেতার বক্তব্য, তাঁর কোনওদিন নিজের নামের ইমেল আইডির প্রয়োজনই হয়নি। তিনি ফোনে এবং মুখোমুখি কথা বলতেই বেশি পছন্দ করেন।

জানেন সলমন হাতে যে ব্রেসলেটটি পরেন, সেটি কেন কখনও নিজের থেকে আলাদা হতে দেন না? আসলে বাবা সেলিম খানের হাতে একই রকম ব্রেসলেট রয়েছে। সেটি দেখেই নিজেরটি বানিয়েছিলেন সলমন। এটিকে সৌভাগ্যের প্রতীক বলেই মনে করেন তিনি।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন

ফের সার্জিকাল স্ট্রাইকের রাত, পাক-হামলার পালটা জবাব ভারতের

ভারতে প্রথম শহর হিসেবে নিজস্ব লোগো পেল বেঙ্গালুরু

জানেন কোন কোন ফোনে বন্ধ হতে চলেছে হোয়াট্‌সঅ্যাপ?

Loading...

Comments

comments