TOP নিউজ

রাতের অন্ধকারে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যম্পাসে সঙ্গী সহ মত্ত হল তরুণী

Loading...

ফের প্রশ্নের মুখে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার বজ্র আঁটুনি৷ সকলের নজর এড়িয়ে পুরুষ সঙ্গীকে নিয়ে রাতের অন্ধকারে বেশ কয়েকঘণ্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের মধ্যেই কাটালেন এক তরুণী৷ নিরাপত্তারক্ষীদের দাবি, তিনি মত্ত অবস্থায় ছিলেন৷ রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ ৪ নম্বর গেট দিয়ে বেরনোর সময় পরিচয় জানতে চাইলে তাঁরা রক্ষীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করেন৷ ভাঙচুর চালানো হয়৷ জখম হন দু’জন নিরাপত্তা রক্ষী৷ বিশ্ববিদ্যলয়ের তরফে পুরো ঘটনাটি জানানো হয়েছে পুলিশকে৷ যাদবপুর থানার পুলিশ অরিত্র দে এবং রিপন ঘোষ নামে দুই বহিরাগতকে গ্রেফতার করেছে। এদিনই তাদের আলিপুর আদালতে তোলা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসেছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ৷ সূত্রের খবর, বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার প্রশ্নে সরব হয়েছেন একাধিক সদস্য৷ চারিদিকে নিরাপত্তারক্ষী থাকা সত্বেও সকলের নজর এড়িয়ে ওই মদ্যপ তরুণী কি করে পুরুষ সঙ্গীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঢুকে পড়লেন? উঠছে সেই প্রশ্নও৷ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়েছেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ ক্যাম্পাসের ৪ নম্বর ফটক দিয়ে বাইরে বেরানোর চেষ্টা করেন মদ্যপ ওই তরুণী৷ সঙ্গে ছিলেন তাঁর পুরুষ সঙ্গী৷ নিরাপত্তারক্ষীরা পরিচয় দেখাতে বললে তাঁরা অবশ্য পরিচয় দেখাতে পারেননি৷ এরপরই নিরাপত্তা রক্ষীরা তাঁদের ৪ নম্বর গেট সংলগ্ন ইউনিয়ন রুমে নিয়ে গিয়ে বসান৷ এত রাতে ক্যাম্পাসের ভিতরে তাঁরা কি করছিলেন, জানতে চান৷ অভিযোগ সেসময় মত্ত অবস্থায় তাঁর ইউনিয়নের রুমের কাচের জানলা, দরজা ভাঙচুর করেন৷ ভাঙচুর করতে গিয়ে জখম হন ওই মত্ত তরুণী৷ তাঁকে আটকাতে গিয়ে কাঁচের টুকরোয় জখম হন দু’জন নিরাপত্তারক্ষীও৷

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, রাতে সাড়ে ১১টা থেকে এই তাণ্ডব চলে এদিন ভোর সাড়ে চারটে পর্যন্ত৷ পরে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাঁদের ভর্তি করানো হয়৷ খবর দেওয়া হয় পুলিশে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে৷ তরুণী ও তঁর সঙ্গীর পরিচয় জানার চেষ্টা করছে পুলিশ৷ এদিন ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, ইউনিয়ন রুমের গেটের সামনে চাপ চাপ রক্তের দাগ৷ নিরাপত্তার বজ্র আঁটুনি থাকা সত্বেও কিভাবে সকলের নজর এড়িয়ে ওই তরুণী পুরুষ সঙ্গীকে নি্য়ে ক্যাম্পাসের ভিতরে ঢুকে পড়লেন, সেই প্রশ্ন উঠছে৷ রাতের অন্ধকারে কি উদ্দেশ্যেই বা তাঁরা ক্যাম্পাসে ঢুকেছিলেন, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এদিন উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসেছেন৷ সেখানে নিরাপত্তার গাফিলতির বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

সূত্র ঃ কলকাতা ২৪*৭

আরও পড়ুন

“আর কোনোদিন স্যানিটারি প্যাড ব্যবহার করবনা”- বললেন দিয়া মির্জা

ক্রিকেটার অজিঙ্ক রাহানের বাবাকে গ্রেপ্তার করল কোলাপুর পুলিশ! কেন জানুন

বরফের মাঝে মধুচন্দ্রিমায় মেতে রয়েছেন নবদম্পতি বিরাট-অনুষ্কা

বল হাতে ভেলকি আফ্রিদির, ১০-১০ ক্রিকেটে প্রথম হ্যাটট্রিক প্রাক্তন পাক অধিনায়কের

Loading...

Comments

comments