TOP শিক্ষা ও স্বাস্থ্য

নাক ডাকার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন কি করে? জেনে নিন

Loading...

নাক ডাকার সমস্যা ঘরে ঘরে ৷ সমীক্ষা বলছে গড়ে প্রতি দু’জন ব্যক্তির মধ্যে একজন নাক ডাকেন ৷ যিনি নাক ডাকেন, তিনি তো মনের সুখে ডাকছেন কোনও সমস্যা নেই ৷ কিন্তু যিনি পাশে শুয়ে আছেন, তাঁর আর ঘুম না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি ৷ বিরক্তিকর নাক ডাকের আওয়াজ শুনতে আর কারই বা ভাল লাগে বলুন ৷ এর থেকে বাঁচার কয়েকটা উপায় রয়েছে ৷ নাক ডাকার আওয়াজ ও পরিমাণ অস্বাভাবিক হলে অবশ্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিৎ। তবে এর জন্য কোনও ওষুধ না খাওয়াই ভাল ৷ আর খেলেও সেটা ডাক্তারের পরামর্শ নিয়েই খাওয়া উচিৎ ৷

১) এলাচের দানা গুড়ো করে রেখে দিন। প্রত্যেকদিন রাতে শুতে যাওয়ার সময় ১ গ্লাস উষ্ণ গরম জলে ১/২ চামচ এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে খেয়ে নিন। কাজে দেবে।

২) মাখন গরম করে গলিয়ে নিন। তারপর নাকের দুই ছিদ্রে ১ ফোঁটা করে এই গলানো মাখন দিন। প্রত্যেক দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এবং রাতে শুতে যাওয়ার সময় করুন।

৩) চিত হয়ে শোয়ার থেকে যদি একদিক করে শোয়া যায় তাহলে নাক ডাকা অনেক কম হয়। এর জন্য আপনি একটি টেনিস বল পায়জামার পিছন পকেটে রেখে দিন শুতে যাওয়ার সময়। এর ফলে চিত হতে শুতে গেলেই বলটি লাগবে, ঘুমের ঘোরেও আপনি পাশ ফিরেই শুতে বাধ্য হবেন।

৪) অনেকে আছেন যারা রাতে শুতে যাওয়ার আগেই ঠিক এক গ্লাস ঠাণ্ডা দুধ খেয়ে শুতে যান। এর ফলে মুখে ও গলায় শ্লেষ্মার একটা পরত জমে যায়। ফলে নাক ডাকার আওয়াজ আরও বেড়ে যায়।

৫) রাত ৮ টার পর ভারি খাবার একেবারে পেট ভরে খাবেন না। বা খাওয়ার ঠিক পরেই শোবেন না। একেই সন্ধ্যার পর শরীরের যন্ত্রাদি কাজের গতি মন্থর করে। তখন যদি অতিরিক্ত খাবার পেটে য়ায়, পাচন যন্ত্রকে অতিরিক্ত শক্তি লাগাতে হয় তখন। ফলে ঠিক করে শ্বাস নিতে সমস্যা হয়। তখনই নাক ডাকার আওয়াজ উৎপন্ন হয়।

৬) অ্যালকোহল এবং ধূমপান উভয়ের প্রভাবেই নাক ডাকার আওয়াজ ভয়ঙ্কর থেকে ভয়ঙ্করতর হতে পারে। কারণ এই ধরণের নেশা আমাদের পেশিকে বিশ্রাম দেয়, ফলে স্বাভাবিক কাজ বাধা পায়। যার ফলেও নাক ডাকার সমস্যা হয়। তাই  শুতে যাওয়ার ঠিক আগেই ধূমপান করবেন না।

সূত্র ঃ নিউজ ১৮

আরও পড়ুন

সেক্স নয়, বিয়ের পর যে কারণে মোটা হয়ে যায় মেয়েরা

সেলফি তুলে দেশছাড়া হতে হল এই সুন্দরী ও তাঁর পরিবারকে !

সান্তারূপী রায়গঞ্জের বিধায়ক, দুস্থদের হাতে তুলে দিলেন কম্বল

জন্মদিনে অটলবিহারি বাজপেয়িকে শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর

Loading...

Comments

comments