TOP আন্তর্জাতিক

গাড়ির ভিতরে শরীরী মিলনের সময় অদ্ভুত কারণে মৃত্যু হয় এক কিশোরীর!

Loading...

বন্ধ গ্যারেজে গাড়ির ভিতরে ঘনিষ্ঠ হয়েছিল ২২ বছরের তরুণ ও ১৫ বছরের কিশোরী। খানিক পরেই অজ্ঞান হয়ে গেল দু’জনে। তরুণটির জ্ঞান ফিরলেও মেয়েটির জ্ঞান আর ফেরেনি। গ্রেফতার করা হয়েছে ওই তরুণকে। কিশোরীর মৃত্যুর কারণ হিসেবে যা জানা গিয়েছে তা অদ্ভুত।

মেট্রো.কো.ইউকে-তে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ার জেমেতচিনোতে। আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে ১৫ বছরের অ্যালেনা স্টিউখিনার সঙ্গে আলাপ ২২ বছরের আর্টিওম ডোরোগভের। এর পর ক্রমে সম্পর্ক গাঢ় হয় তাদের।

দু’জনে পরস্পরের নিবিড় সান্নিধ্য লাভের জন্য উপস্থিত হয় এক গ্যারেজে। গ্যারেজের ভিতরেই শরীরী মিলনে লিপ্ত হয় তারা। কিন্তু শীতের কামড়ে দু’জনেই নাজেহাল হয়ে যায়। এর পর ডোরোগভ গাড়ির ইঞ্জিন চালিয়ে দেয় গ্যারেজকে উষ্ণ রাখতে। সে ভাবতেও পারেনি কত বড় বিপদ ডেকে আনছে।

খানিকক্ষণ পরেই দু’জনের শরীরে অস্বস্তি দেখা দেয়। ডোরোগভ বুঝতে পারে ইঞ্জিনটা চালিয়ে রাখার কারণেই কিছু একটা গণ্ডগোল হচ্ছে। কিন্তু তার পক্ষে আর গিয়ে ইঞ্জিন বন্ধ করে দেওয়া সম্ভব হয়নি। কেননা, অব্যবহিত পরেই জ্ঞান হারায় সে। অজ্ঞান হয়ে যায় অ্যালেনাও।

জ্ঞান ফিরলে হতভম্ব ডোরোগভ তড়িঘড়ি তার আত্মীয়দের ডেকে আনে। অ্যালেনাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

কিন্তু কেন প্রাণ গেল তার? চিকিৎসকদের মতে, ইঞ্জিন চালু থাকার ফলে বিষাক্ত কার্বন মনোক্সাইড গ্যাস নির্গত হচ্ছিল। যেহেতু গ্যারেজের দরজা বন্ধ ছিল, তাই ওই গ্যাস বেরতে পারছিল না সেখান থেকে। অচিরেই পুরো জায়গাটা ভর্তি হয়ে যায় ভয়ঙ্কর কার্বন মনোক্সাইডে। তার ফলেই ঘনিয়ে আসে মৃত্যু।

পুলিশ ডোরোগভকে গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে দু’টি অভিযোগ। এক, অনিচ্ছাকৃত হত্যা। দুই, ১৬ বছরের কম বয়সী মেয়ের সঙ্গে শরীরী মিলনে লিপ্ত হওয়া।

Loading...

Comments

comments