অবাক করবে আপনাকে চাকরির পরীক্ষায় ‘হাই-টেক’ টুকলির পদ্ধতি জানলে

Loading...

ধৃতদের আটক করেছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। তাঁদের জেরা করা হচ্ছে।

যুগটা ডিজিটাল। অত্যাধুনিক সব গ্যাজেটের এই জমানায় পরীক্ষা হলের আদ্যিকালের টোকাটুকিতেও এল নতুন দিন। মেদিনীপুর জেলা আদালতে ক্লার্ক নিয়োগের পরীক্ষার সময়ে ধরা পড়লেন ১০ জন পরীক্ষার্থী, যাঁরা অসাধু উপায় অবলম্বন করে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। এঁদের প্রত্যেকেরই কানে ছিল ব্লুটুথ! এর সাহায্যে বাইরে থেকে সাহায্য নিয়ে তাঁরা পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। এমন অভিনব টুকলির পরিকল্পনা শেষমেশ ব্যর্থ হল।

কয়েক মাস আগে পশ্চিম মেদিনীপুরে জেলা আদালতের বিভিন্ন বিভাগে ক্লার্ক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয় ৷ অনলাইনের মাধ্যমে পরীক্ষার্থীরা জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ফর্ম পূরণ করেছিলেন। বিজ্ঞাপন দিয়ে এই পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। ক্লার্ক নিয়োগের এই পরীক্ষা কয়েকটি ধাপে হবে। রবিবার ছিল তার প্রথম ধাপ। মেদিনীপুর শহরের বিভিন্ন বিদ্যালয় ও কলেজে পরীক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা করা হয়েছিল ৷ পরীক্ষায় বসেছিলেন কয়েক হাজার পরীক্ষার্থী।

বেলা এগারোটা থেকে পরীক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই চারটি পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে ১০ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অসাধু উপায় প্রয়োগের অভিযোগে ধরা পড়েন ৷ এর মধ্যে মেদিনীপুর কলেজিয়েট বালক বিভাগ থেকে ৬ জন, মেদিনীপুর কলেজের পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে ২ জন, স্মৃতিকণা শ্রী অরবিন্দ উচ্চবিদ্যালয় থেকে ১ জন এবং পাহাড়িপুর বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে ১ জনকে ধরা হয়। ধৃতদের মধ্যে ৮ জন নদিয়ার বাসিন্দা, বাকি দুজন পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোনা ও দাসপুরের বাসিন্দা ৷ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে একজন ছাত্রী।

জানা গিয়েছে, এঁদের প্রত্যেকের কাছেই খুব ছোট ব্লু-টুথ ডিভাইস ছিল ৷ যা কানের ভেতরে ঢুকিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন তাঁরা ৷ ধৃতদের আটক করেছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। তাঁদের জেরা করা হচ্ছে। এর পিছনে কোনও চক্রের হাত রয়েছে কি না, খতিয়ে দেখা হচ্ছে সেটাও।

সবথেকে জনপ্রিয় খবরগুলো:

অভিনব পোশাকে যৌন হেনস্তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ালেন মডেলরা।

পাবলিক টয়লেটের সন্ধান মিলবে গুগল করলেই। চেপে রেখেযন্ত্রণা ভোগের দিন শেষ,

হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। বার বিমানে মিলবে বিলাসবহুল বেডরুম!

নিলামে উঠছে দুই কুমারীর কুমারীত্ব, কেন এমন সিদ্ধান্ত জানালেন তাঁরা।

কালো বিড়ালকে অশুভ শক্তির প্রতীক হিসেবে ধরা হয়! কারণ অবাক করার মতো

 

সুত্রঃ Ebela

Loading...

Comments

comments