কন্যাশ্রীর টাকা বাঁচিয়ে শৌচালয় তৈরি করল মুর্শিদাবাদের সাবিনা

Loading...

বাড়িতে শৌচাগার না থাকার সমস্যা ছোটবেলা থেকেই দেখেছে মুর্শিদাবাদের রানিনগরের সাবিনা ইয়াসমিন। শৌচালয় না থাকায় বাড়ির সকলকে ছুটতে হয়েছে মাঠে-ঘাটে। তাই কন্যাশ্রীর ২৫ হাজার টাকা মিলতে সাবিনা নিজেই উদ্যোগ নেয় বাড়িতে শৌচাগার তৈরির। শৌচালয় তৈরির জন্য কন্যাশ্রীর পুরো টাকাটাই তুলে দেয়  তার বাবার হাতে। সাবিনা জানায়, “ আমি তো বাড়ির প্রয়োজন মিটিয়েছি।  তার যে এত কদর আগে বুঝতে পারিনি।  এখন মনে হচ্ছে সত্যি ভাল কিছু করেছি।” আর সাবিনার এই  উদ্যোগে খুশি গ্রামবাসী থেকে প্রশাসনের কর্তারাও।

রানিনগরের কাতলামার স্নাতক স্তরের প্রথম বর্ষের ছাত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। দরিদ্র পরিবারের মেয়ে সাবিনা ছোট থেকেই এলাকায় মেধাবী ছাত্রী হিসাবে পরিচিত। বাবা আবু বক্কর শেখ পেশায় কৃষক। দারিদ্রের সঙ্গে লড়াই করে চার সন্তানকে শিক্ষার আলো দিতে কখনও পিছপা হননি। এখন মেজ মেয়ে সাবিনার কীর্তিতে আজ গর্বিত তিনি। মেয়ের কন্যাশ্রীর পাওয়া টাকায় শৌচালয় তৈরির ইচ্ছাপূরণ করতে বাড়িতে শৌচাগারের নির্মাণকাজও শুরু করেছেন। কিন্তু তখন মেয়ের এই উদ্যোগের গুরুত্ব বুঝতে পারেননি । এখন যখন মেয়েকে অভিনন্দন জানাতে গ্রামে প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের ভিড়, সকলে ধন্যধন্য করছে, তখন বুঝতে পেরেছেন সত্যি মেয়ে ভালা কিছু করেছে।

আর হবে নাইবা কেন? স্বয়ং রানিনগর ২ ব্লকের বিডিও আশিস কুমার  রায় সাবিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। বিডিও জানান, “মিশন নির্মল বাংলার পরিস্থিতি দেখতে গিয়ে আমরা ওই ছাত্রীর উদ্যোগের কথা জানতে পারি। বিষযটি আমাদের কাছে অভিনব মনে হয়েছে। মেয়েটি সকলকে চমকে দিয়েছে।”  এসডিও তাহেরুজ্জামান জানান, “আমরা মিশন নির্মল বাংলার প্রচারের মধ্যেই ছিলাম, তাই ভাবলাম, প্রচারে ওকেও শামিল করি। তাই ওকে ডেকে আজকেই সংবর্ধনা দেওয়া হল।”  সাবিনার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে অন্য গ্রামবাসীরাও এখন মিশন নির্মল বাংলা শামিল হতে তৈরি।

সুত্র ঃ সংবাদ প্রতিদিন

আরও পড়ুন

তুষারশুভ্র উত্তর সিকিমের লাচুং-লাচেন, দার্জিলিংয়েও তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নিচে

আপনার রান্নাঘরে গ্যাস স্টোভ আছে কি তাহলে সাবধান এই বিপদ থেকে

থাইল্যান্ডে পুরুষাঙ্গ ফরসা করার হিড়িক, ভাইরাল হল ভিডিও

হজ হাউসের রং বদলে গেরুয়া করল যোগী প্রশাসন, তীব্র সমালোচনা

Loading...

Comments

comments